কক্সবাজারের মহেশখালীতে বিধ্বস্ত বিমানের যন্ত্রাংশ উদ্ধারে ৬৫ সদস্য

॥ কক্সবাজার সংবাদদাতা ॥ কক্সবাজারের মহেশখালীতে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর এয়ার চিফ মার্শাল আবু এশরার। একই সঙ্গে উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের কম্বনিয়া পাড়ার পাহাড়ে মাটিতে ডুকে যাওয়া বিমানের উদ্ধার কাজ পরিদর্শন করেন।
চট্টগ্রাম জহরুল হক বিমান ঘাটি থেকে কর্নেল এনামুল হক ও কক্সাবাজার স্কোয়াডন ডোন লিডার ও রেস্কিউটিমের প্রধান আরমান খানের নেতৃত্বে ৬৫ বিমান বাহিনীর সদস্যের সমন্বয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে। বিমান বাহিনীর উদ্ধার কাজের সহায়তা করছেন মহেশখালী উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের সদস্যরা।
রেস্কিউটিমের প্রধান আরমান খান জানান, প্রাথমিকভাবে উদ্ধার হওয়া বিমানের যন্ত্রাংশ উপজেলা ডাকবাংলোতে সংরক্ষণ করে পরে বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে নিয়ে যাওয়া হবে। বিধ্বস্ত বিমানের বিভিন্ন অংশে ফায়ার হওয়া ও দুর্ঘটনা সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।
উদ্ধার কাজ পরিদর্শনে ছিলেন মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালাম, কক্সবাজার জেলার সহকারী পুলিশ সুপার (মহেশখালী সার্কেল) রতন দাশ গুপ্ত, মহেশখালী পৌর মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া, মহেশখালী থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শফিউল আলম সাকিক, সাবেক মেয়র সরওয়ার আজম, ছোট মহেশখালীর ইউপি চেয়ারম্যান জিহাদ বিন আলী প্রমুখ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ২৬ বছর পূর্তি উদযাপন বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ থাকা সত্ত্বেও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় শান্তিচুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নে অঙ্গিকারাবদ্ধ ——পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে আশু করণীয় শীর্ষক-গোলটেবিল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত : উপনিবেশিক ও অসাংবিধানিক ১৯০০ সালের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে হবে–সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক এমপি