বাঘাইছড়িতে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ার: স্থানীয়দের মধ্যে আতংক

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের দ্বারা ব্রাশফায়ারের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় কোন হতাহত না হলেও এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে স্থানীয়দের মধ্যে।
মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) রাত ১১টার দিকে বাঘাইছড়ি মারিশ্যা ইউনিয়নের তুলবানে এই ব্রাশ ফায়ারের ঘটনা ঘটে। তবে তাৎক্ষনিক হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
বাঘাইছড়ি থানার ওসি মোঃ আশরাফ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আঞ্চলিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর এলাকা নিজেদের আধিপত্য বিস্তারের লক্ষে এই হামলা হতে পারে বলে ধারণা করছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।
ব্রাশফায়ারের পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে মারিশ্যা জোনের বিজিবির একটি টহল দল এলাকার নিয়ন্ত্রণ নেয়। এর আগেই বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে রাতের অন্ধকারে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা জঙ্গলে পালিয়ে যায়।
জানা গেছে, ব্রাশফায়ারের ঘটনা ঘটার পর থেকে তুলবান এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এলাকার স্থানীয়রা আতঙ্কে মধ্যে রয়েছে। আবারো কোন বড় ধরনের ঘটনা ঘটবে কিনা এই নিয়ে চারদিকে আতংক বিরাজ করছে তাদের মনে।
জানা যায়, বাঘাইছড়িতে এর আগেও বেশ কয়েকবার এমন ব্রাশফায়ার ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয়রা বলছেন, পাহাড়ি যে চার স্থানীয় রাজনৈতিক সংগঠন আছে তাদের মধ্যে এলাকা আধিপত্যের লড়াইয়ে এমন ঘটনা ঘটছে। যার কারণে আতঙ্কেই দিন কাটছে স্থানীয়দের মাঝে।
এ ঘটনার বিষয়ে ওসি মোঃ আশরাফ উদ্দিন বলেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। আর এতে করে পুরো এলাকায় পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রনে আছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ২৬ বছর পূর্তি উদযাপন বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ থাকা সত্ত্বেও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় শান্তিচুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নে অঙ্গিকারাবদ্ধ ——পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে আশু করণীয় শীর্ষক-গোলটেবিল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত : উপনিবেশিক ও অসাংবিধানিক ১৯০০ সালের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে হবে–সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক এমপি