খাগড়াছড়িতে আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার হ্যাট্রিক

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥ খাগড়াছড়ি আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ২ লাখ ২০ হাজার ৮৭৬ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী জাতীয় পার্টি মনোনিত প্রার্থী মিথিলা রোয়াজা লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ১০ হাজার ৯৩৮ ভোট। সোনালী আঁশ প্রতীকে তৃণমূল বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী উশ্যেপ্রু মারমা ৯ হাজার ৫২৬ ভোট ও আম প্রতীকে ন্যামনাল পিপলস্্ পার্টি মনোনীত প্রার্থী মোস্তফা আল ইহযায পেয়েছেন ৮ হাজার ৪৫৬ ভোট।
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্যদিয়ে টানা তিন বার নির্বাচিত হয়ে তিনি হ্যাট্রিক করলেন। তবে তার তিন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন।
রবিবার (৭ জানুয়ারী) রাতে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. সহিদুজ্জামান এই ফলাফল ঘোষনা করেন। ভোট পড়েছে ৪৯.৯৮ শতাংশ।
এদিকে খাগড়াছড়ি সংসদীয় আসনে ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৯টি কেন্দ্রে কোন ভোটও পড়েনি। এ ছাড়াও ৫টি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে মাত্র ১৮টি।
খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার ২৪ কেন্দ্রের মধ্যে ১১টিতে কোন ভোট পড়েনি এবং একই উপজেলার দক্ষিণ লতিবান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট পড়েছে মাত্র একটি। পানছড়ির সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা অঞ্জন দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
দীঘিনালা উপজেলায় ৩টি কেন্দ্রে শূন্য গেছে। একই উপজেলার আরো ৫টি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে মাত্র ১৮টি। এই আট কেন্দ্রের বিপরীতে ভোটার ছিল ২৪ হাজার ৮৯৩ জন।
লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার ১২ কেন্দ্রের মধ্যে ৫টিতেই ভোট পড়েনি। এরমধ্যে বর্মাছড়ি ইউনিয়নের ৪টি ও সদর ইউনিয়নের ১টি।
শূন্য ভোট কেন্দ্রগুলো হচ্ছে, পানছড়ি উপজেলার লোগাং করল্যাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তারাবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চেঙ্গী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তারাবনছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শুকনাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মরাটিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শান্তিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুদুকছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কিষ্টমনি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বড় পানছড়ি (উত্তর) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, লতিবান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
দীঘিনালার কেন্দ্রগুলো হলো, নূনছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইন্দ্রমনি কার্বারী পাড়া, জারলছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ধীরেন্দ্র হেডম্যান পাড়া, ২ নং বাঘাইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এছাড়াও লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় ৫টি কেন্দ্রে কোন ভোট পড়েনি। এদিকে পানছড়ি উপজেলায় জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে ৪ যুবকের ৬ মাস করে জেল দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
নিজ নিজ উপজেলায় নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা কেন্দ্রে এই তথ্য জানানো হয়। তবে, রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. সহিদুজ্জামান এখনও এ বিষয়ে কথা বলেননি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সশস্ত্র সংঘাত ও তথ্য বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে ছাত্র-যুবসমাজের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভা :  পার্বত্য অঞ্চলে কিছু গোষ্ঠী উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবেই বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে —-চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের