বান্দরবানের (খিয়ংওয়াক্যং) রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের কমিটিতে নতুন মুখ

॥রাহুল বড়–য়া ছোটন, বান্দরবান॥ বান্দরবানের (খিয়ংওয়াক্যং) রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের অর্ন্তবর্তীকালীন পরিচালনা কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৯ মে) সন্ধ্যায় বোমাং সার্কেল চিফ রাজা বোমাংগ্রী উ চ প্রু এর স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।
রাজকুমার মংঙোয়ে প্রু কে আহ্বায়ক করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট এই কমিটি ঘোষণা করা হয়।
কমিটিতে বান্দরবান সদরের পুরাতন রাজবাড়ির রাজকুমার সাশৈ প্রু হেডম্যান এবং রাজকুমার নুমংপ্রু কে সিনিয়র সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।
এছাড়াও জেলা সদরের মধ্যম পাড়ার উম্যা মং, পুরাতন রাজবাড়ির রাজকুমার শৈনু প্রু রুমু, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা উ চিং মং, মধ্যম পাড়ার মং মং সিং, উজানী পাড়ার কো কো ওয়াই, ক্য শৈ চিং, মধ্যম পাড়ার ক্যসিং মং এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কে এস মং কে রাখা হয়েছে সদস্য সচিব হিসেবে রাখা হয়েছে।
ওই চিঠিতে আগামী ৩ মাসের মধ্যে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের কথা বলা হয়েছে। এছাড়াও অর্ন্তবর্তীকালীন এই কমিটি রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের পরিচালনা নীতিমালা প্রণয়ন করবে এবং পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন না হওয়া পর্যন্ত উক্ত বিহারের সার্বিক কর্মকান্ড পরিচালনা করবে।
বোমাং রাজা উ চ প্রু জানান, অর্ন্তবর্তীকালীন পরিচালনা কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে। আশা করি তারা একটি পূণাঙ্গ কমিটি উপহার দিবেন।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ২৬ বছর পূর্তি উদযাপন বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ থাকা সত্ত্বেও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় শান্তিচুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়নে অঙ্গিকারাবদ্ধ ——পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে আশু করণীয় শীর্ষক-গোলটেবিল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত : উপনিবেশিক ও অসাংবিধানিক ১৯০০ সালের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে হবে–সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক এমপি