খাগড়াছড়িতে দূর্ধর্ষ ডাকাতি ও প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার-৭

॥ খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা ॥ খাগড়াছড়ির বলপাইয়া আদাম এলাকায় গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সামনে এক বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি এবং বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক নারীকে গণধর্ষনের ঘটনায় চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে ৭ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।
বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত গভীর রাত আনুমানিক দু’টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলার বলপাইয়া আদাম এলাকায় বিন্দু লাল চাকমার বাড়ীতে দূর্ধর্ষ এই ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ৯ সদস্যের ডাকাত দল ডাকাত দল বাড়িতে প্রবেশ করে সবার হাত পা বেঁধে ফেলে। এসময় একটি কক্ষে নিয়ে তার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারী (২৬) বেঁধে রেখে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে। ঘরে প্রায় দেড় তান্ডব চালিয়ে ডাকাত দল স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোন সেটসহ নগদ টাকা নিয়ে যায়। হামলাকারীদের অধিকাংশের মুখে মাস্কপড়া ছিল। বাকীদের মুখ ঢাকা ছিলনা। তাদের দু‘জন ছিলো লুঙ্গি পড়া অবস্থায়।
গৃহকর্তী বিন্দু লাল চাকমা শারিরীক ভাবে খুবই অসুস্থ্য হওয়ায় দূর্বৃত্তদের কোন ধরণের প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয়নি। ঘরের বাইরে থেকে দরজার হুক মেরে ভোর আনুমানিক ৪টার দিকে ডাকাত সদস্যরা চলে যায় বলে জানান, বিন্দু কুমার চাকমার স্ত্রী পুস্প রানী চাকমা।
এদিকে, ধর্ষিতা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারী খাড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার ডাক্তারী পরীক্ষা করা হয়েছে। তিনি সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার পূর্ণ জীবন চাকমা।
খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: রশীদ জানান, আমরা এখনো চট্টগ্রামে অভিযান চালাচ্ছি। তদন্তের স্বার্থে বিস্তারিত জানাতে পারছিনা। তবে অগ্রগতি শতভাগের পথে। অপরাধী যারাই হোক খুঁজে বের করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় জেলা পর্যায়ে স্টেকহোল্ডার ক্যাম্পেইন বিষয়ক কর্মশালা প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি ঘরে ঘরে কর্মসংস্থান সৃষ্টির পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমাদের আরো গ্রহনযোগ্য প্রকল্প হাতে নিতে হবে —–দীপংকর তালুকদার এমপি