আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে তীব্র হার্ড লাইনে রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনী

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ করোনা মোকাবেলায় রাঙ্গামাটিতে সরকারের বিধি নিষেধ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে তীব্র হার্ড লাইনে রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনী। গতকাল সকাল থেকে রাঙ্গামাটিতে লোকজনের চলালে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। অযথা ঘরের বাইরে বের হলেই রোদে দাঁড় করিয়ে রাখছে ঘন্টার পর ঘন্টা। রাঙ্গামাটি শহরে সাইকেল আরোহীদেরকে ও বিনা প্রয়োজনে মোটর বাইক নিয়ে চলাচল করলে বাইক রেখে বাড়ী চলে যাওয়ার নির্দেশনা প্রদান করছেন। না হলে ঘন্টা খানেক রাস্তায় বসিয়ে রেখছে।
গতকাল শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে রাঙ্গামাটির পুলিশের কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। প্রতিটি পয়েন্টে যে কোন লোকজনকে চলাচলের সময় পড়তে হচ্ছে কৈফিয়াতের মুখে। এই কৈফিয়তে বাদ যায়নি সাংবাদিকরাও। এক মোটর সাইকেলে দুই জন দেখলেই নামিয়ে দিচ্ছে একজনকে।
এই বিষয়ে দায়িত্ব রত কয়েকজন পুলিশ সদস্যসের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাইরে অযথা ঘুরাফিরা করছে তারা। তাই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এখানে কেউ বাদ পড়বে না। সকলকেই সরকার বলছে ঘরে থাকতে।
রাঙ্গামাটি শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুওে বেড়াচ্ছে জেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পুলিশের নেতৃত্বে ৬ টি মোবাইল টিম। প্রতিটি পাড়ায় পাড়ায় ঢুকে জনগনকে ঘরে থাকার জন্য নির্দেশ প্রদান করছে এবং মাইকিং করছে। লোকজনের জটলা দেখলেই দাবরানী দিচ্ছে তাদেরকে।
এই অবস্থায় কার্যকত সরকারের আইন অমান্যকারীরাই বেশী ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। যারা সঠিক তথ্য প্রমান দিয়ে বাইরে যেতে চায় তাদেরকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কোন ধরনের বাধা নিষেধ দিচ্ছে না। সকাল থেকে মোবাইল কোর্টের অক্লান্ত পরিশ্রম মানুষদেরকে ঘরে ঢুকতে বাধ্য করেছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে আশু করণীয় শীর্ষক-গোলটেবিল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত : উপনিবেশিক ও অসাংবিধানিক ১৯০০ সালের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে হবে–সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক এমপি

পার্বত্য এলাকায় খ্যাতিমান সাংবাদিক হিসেবে বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত : পার্বত্য চট্টগ্রামের সংবাদপত্রের পথিকৃত, চারণ সাংবাদিক দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক এ,কে,এম মকছুদ আহমেদের ৮০তম জন্মদিন আজ