চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীনের নিকট ১০ হাজার মাক্স ও ৪ শত পিপিই হস্তান্তর করেছে চায়না জিমেন সেং ওহাং টুরিজম কোং লিমিটেড এর পক্ষে লায়ন্স ক্লাব ও ঢাকা রাজধানীর নেতৃবৃন্দ। আজ মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর টাইগারপাস্থ চসিক নগরভবনের মেয়র দপ্তরে এইসব সামগ্রী হস্তান্তর করেন। এসময় প্যানেল মেয়র ড.নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো.সমশুদ্দোহা, চট্টগ্রাম শিশু পার্কের ডি.এ যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্ব মো.এনামুল হক চৌধুরী, জিএম মো. নাসির উদ্দীন, ম্যানেজার বীরমুক্তিযোদ্ধা সোহরাব হোসেন, চসিক প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মো. শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সুদিপ বসাক উপস্থিত ছিলেন। সিটি মেয়র জিমেন সেং ওহাং টুরিজম কোং লিমিটেডকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সর্ব প্রথম সুরক্ষা দরকার সেবা প্রদানকারী ডাক্তার,নার্স,স্বাস্থ্য কর্মী ও যারা এই রোগীর সংস্পর্শে যায়। এজন্য মাক্স ও পিপিই অত্যন্ত জরুরী, যার সংকট এখন পৃথিবীময়। কর্পোরেট হাউসগুলো এভাবে এগিয়ে আসলে করোনা রোগীর সেবা সহজরত হবে। তিনি আরো বলেন, এই অদৃশ্য সংক্রামণ রোগ থেকে বাঁচার একমাত্র উপয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক প্রদত্ত নির্দেশনা মেনে চলা। এই মহামারিতে নিজেকে রক্ষা করার মাধ্যমেই পরিবার,সমাজ ও দেশ রক্ষা করা সম্ভব। তিনি তিনি সামাজিক দূরত্ব বজিয়ে রেখে করোনামুক্ত থাকতে ঘরে অবস্থানের আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, এই রমজান মাসে কোন মানুষ যাতে অনাহারে না থাকে সে ব্যাপারে আমাদের মানবিকতাকে অগ্রসর করে কাজ করতে হবে। তিনি ত্রান প্রাপ্তি নিশ্চিতে ওয়ার্ড পর্যায়ে জনপ্রতিনিধিদের প্রস্তুতকৃত তালিকায় অন্তভুক্ত হওয়ার নগরবাসীকে পরামর্শ দেন। মেয়র করোনা সংকট কালীন সময়ে জীবন ও জীবিকা দুটোকে রক্ষায় সকলকে সমন্বয় সাধনের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *