বান্দরবানে সংস্কৃতিক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি পাহাড়ের শিল্পীদের সংস্কৃতি বিকাশে এগিয়ে আসতে হবে

॥রাহুল বড়ুয়া ছোটন, বান্দরবান॥ সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, পাহাড়ে সংষ্কৃতির বৈচিত্র রয়েছে। তাই সম্ভাবনাময় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সংস্কৃতির বিকাশে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি দরকার। সরকারের পাশাপাশি সবার উচিত পাহাড়ের এসব শিল্পীদের সংস্কৃতি বিকাশে এগিয়ে আসা।
বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সকালে বান্দরবান ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ইনষ্টিটিউট আয়োজিত অনলাইন প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানে এই কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।
১১টি ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর সম্মিলনে আয়োজিত অনলাইন ভিত্তিক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, করোনা কালীন সময়ের সম্মুখ যোদ্ধাদের পাশাপাশি এই মহামারির সাথে লড়তে হয়েছে শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীদের। এরপরও শিল্পীরা মানুষের মনোবল সুদৃঢ় করার জন্য অবদান রেখেছে।
এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় প্রতিমন্ত্রী বান্দরবান ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনষ্টিউটে রক্ষিত উপজাতীদের সংস্কৃতি সামগ্রী পরিদর্শণ এবং বঙ্গবন্ধু কর্ণার শুভ উদ্বোধন করেন।
বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা’র সভাপতিত্বে পুরষ্কার ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার জেরিন আখতার বিপিএম, জেলা পরিষদ সদস্য সিং ইয়ং ম্রো, মোজাম্মেল হক বাহাদুর, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ইনষ্টিটিউট পরিচালক মংনু চিং মার্মা সহ প্রমুখ।
পরে বান্দরবানে বসবাসরত ১১টি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিশুদের অংশগ্রহণে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ এর পর বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করেন প্রতিমন্ত্রী।

পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় জেলা পর্যায়ে স্টেকহোল্ডার ক্যাম্পেইন বিষয়ক কর্মশালা প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি ঘরে ঘরে কর্মসংস্থান সৃষ্টির পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমাদের আরো গ্রহনযোগ্য প্রকল্প হাতে নিতে হবে —–দীপংকর তালুকদার এমপি