পার্বত্য জেলাগুলোতে বাজার ফান্ডভূক্ত ভূমির ঋণ জটিলতা নিয়ে চেম্বারের মতবিনিময় ভূমির ঋণ জটিলতা নিরসনে প্রয়োজনে মানববন্ধনসহ ৩ জেলার সাথে সমন্বয় করে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ পার্বত্য জেলাগুলোতে বাজার ফান্ড এলাকার ভূমি নিবন্ধন ও বন্ধকী বিষয়ে সৃষ্ট কৃত্রিম জটিলতা নিরসনে মতবিনিময় করেছে রাঙ্গামাটি বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ। মতবিনিময় সভায় এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রাখার পাশাপাশি প্রয়োজনে আন্দোলনে নামার পরামর্শ সাব্যস্ত হয়েছে। রাঙ্গামাটি চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাকক্ষে শনিবার (২৭ জানুয়ারী) সকালে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বাজার ফান্ড ভূমি নিবন্ধন ও বন্ধকীতে যে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে সে বিষয়ে সমাধানকল্পে উপস্থিত সকলে মতামত প্রদান করেন। ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা জানান, বাজার ফান্ডের ভূমি নিবন্ধন ও বন্ধকীতে সৃষ্ট জটিলতার কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে ব্যবসায়ীরা, ফলে রাঙ্গামাটির ব্যবসা বানিজ্যে স্থবিরতা দেখা দিচ্ছে। উপস্থিত সকলেই এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ জানান।
চেম্বারের সভাপতি আব্দুল অদুদের সভাপতিত্বে এ সময় রাঙ্গামাটি চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র পরিচালক হাজি কামাল উদ্দিন, নেছার আহমেদ, মনসুর ওবায়দুল্লাহ, হারুনুর রশিদ মাতব্বর, জহির উদ্দিন, মনিরুজ্জামান মহসিন রানা, মইনুদ্দিন সেলিম, শফিকুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, কাঠ ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সহ-সভাপতি রবিউল আলম রবি, জেলা বার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গাফফার মুন্না, রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনোয়ার মিয়া বানু, তবলছড়ি বাজার চৌধুরী আব্দুল গফুর, আপার রাঙ্গামাটি বাজার চৌধুরী মোঃ মোস্তফা কামাল উদ্দিন, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ নুরুন্নবী, ছিন্নমূল ভূমিহীন কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী মোহাম্মদ ইউনুস, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী প্রদীপ বড়–য়া, রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি মোঃ হারুন, আব্দুল জলিল মাস্টার ও রাঙ্গামাটি চেম্বারের সচিব শাব্বির আহমদসহ বাজার ফান্ড এলাকায় বসবাসকারী গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে, বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসক, বাজার ফান্ড প্রশাসক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে আলোচনা করা হবে। প্রয়োজনে নিয়মতান্ত্রিক বিভিন্ন আন্দোলন স্মারকলিপি পেশ, মানববন্ধনসহ ৩ জেলার সাথে সমন্বয় করে বৃহৎ আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।
এসময় সকলের আলোচনা ও পরামর্শের ভিত্তিতে আগামীতে কর্মসূচি নির্ধারণের জন্য সভায় ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়।
কমিটির সদস্যরা হলেন-আহবায়ক মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ, সদস্য মোঃ হারুনুর রশিদ মাতব্বর, মোঃ মাইনুদ্দিন সেলিম, বাজার চৌধুরী মোঃ আব্দুল গফুর, হাজী মোহাম্মদ ইউনুস, মোঃ জহির উদ্দিন চৌধুরী, বাজার চৌধুরী মোঃ মোস্তফা কামাল উদ্দিন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সশস্ত্র সংঘাত ও তথ্য বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে ছাত্র-যুবসমাজের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভা :  পার্বত্য অঞ্চলে কিছু গোষ্ঠী উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবেই বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে —-চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের