কেএনএফের চাঁদা দাবী ও পরিবহন কর্মীকে মারধর, রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়িতে যান চলাচল বন্ধ

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥ বান্দরবানের রুমা উপজেলায় বান্দরবান-রুমা সড়কে চলাচলরত বাস কাউন্টারের লাইনম্যান লুপ্রু মারমার ওপর হামলার প্রতিবাদে এবং পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠনগুলোর চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে বান্দরবানের ৩ উপজেলা (রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়ি) সড়কে সকল ধরণের বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে এই এই তিন উপজেলায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।
শ্রমিকরা জানান, পার্বত্য এলাকার সশস্ত্র সংগঠন কেএনএফ এর সদস্যরা গত কিছুদিন ধরে বাস মালিকদের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে আসছে। এদিকে এমন পরিস্থিতিতে সকালে রুমা উপজেলার বাসের লাইনম্যান লুপ্রু মারমা বাস ছাড়তে গেলে তার উপর সন্ত্রাসীরা আক্রমন করে। পরে আহত লুপ্রু মারমাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়।
ঘটনার পর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিবহণ ব্যবসায়ীরা আর সাথে সাথে বান্দরবানের ৩ উপজেলা (রুমা, থানচি ও রোয়াংছড়ি) সড়কে সকল ধরণের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় তারা। এদিকে তিন উপজেলা সড়কে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ভোগান্তীতে পড়েছে সাধারণ যাত্রীরা।
বান্দরবানের রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কমকর্তা (ওসি) মো.শাহজাহান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকাল থেকে বাস বন্ধ রয়েছে, আমরা বিষয়টি নিয়ে পরিবহণ মালিক ও শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করছি।
প্রসঙ্গত: এর আগে সন্ত্রাসীরা চাঁদা দাবি করায় নিরাপত্তার কারণে গত ৬ফেব্রুয়ারি থেকে দীর্ঘ আট দিন বন্ধ থাকার পর ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে বান্দরবান-থানচি সড়কে বাস চলাচল শুরু করে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে আশু করণীয় শীর্ষক-গোলটেবিল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত : উপনিবেশিক ও অসাংবিধানিক ১৯০০ সালের পার্বত্য চট্টগ্রাম শাসনবিধি আইন বহাল রাখার ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে হবে–সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক এমপি

পার্বত্য এলাকায় খ্যাতিমান সাংবাদিক হিসেবে বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত : পার্বত্য চট্টগ্রামের সংবাদপত্রের পথিকৃত, চারণ সাংবাদিক দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক এ,কে,এম মকছুদ আহমেদের ৮০তম জন্মদিন আজ